isdb.pw Instagram Stories database Saved Stories of Where is Kajol @whereiskajol profile on Instagram photos and videos

Share :


Posts of @whereiskajol

গুম/নিখোঁজ :৫৩ দিন 
জেল : ৩৪ দিন চলছে
সর্বমোট  ৮৭ দিন চলছে

#whereiskajol #father #journalist #bangladesh

গুম/নিখোঁজ :৫৩ দিন জেল : ৩৪ দিন চলছে সর্বমোট ৮৭ দিন চলছে #whereiskajol #father #journalist #bangladesh

Disappearance:53 days 
Jail: 33 days 
A total of 86 Days
. "গুম"/"নিখোঁজ " :৫৩ দিন 
জেল : ৩৩ দিন চলছে
সর্বমোট  ৮৬ দিন চলছে

#freekajol #Journalist #bangladesh #photojournalist

Disappearance:53 days Jail: 33 days A total of 86 Days . "গুম"/"নিখোঁজ " :৫৩ দিন জেল : ৩৩ দিন চলছে সর্বমোট ৮৬ দিন চলছে #freekajol #Journalist #bangladesh #photojournalist

বাবার জন্মদিন আজকে, শুভ জন্মদিন বাবা. "গুম"/"নিখোঁজ " :৫৩ দিন 
জেল : ২৯ দিন চলছে
সর্বমোট  ৮২ দিন চলছে

ইদানিং আমার সকল সময় যাচ্ছে  বাংলাদেশের আইন কানুন বুঝতেই......

বাবার জন্মদিন আজকে, শুভ জন্মদিন বাবা. "গুম"/"নিখোঁজ " :৫৩ দিন জেল : ২৯ দিন চলছে সর্বমোট ৮২ দিন চলছে ইদানিং আমার সকল সময় যাচ্ছে বাংলাদেশের আইন কানুন বুঝতেই......

Bangladesh must end persecution of journalist, say UN experts 
GENEVA (26 May 2020) – UN experts* expressed alarm about the ongoing persecution of journalist Shafiqul Islam Kajol in Bangladesh and his previous suspected enforced disappearance. They warned that his detention and the ongoing criminal cases against him compound fears that Bangladesh is using its Digital Security Act to stifle free speech. "The targeting of investigative journalists like Shafiqul Islam Kajol raises serious questions about Bangladesh's commitment to a free and independent media. Such persecution has devastating consequences for the journalists and their families – and also for society as a whole. Journalism is an essential function for society, democracy and accountability," the experts said.

Before his disappearance on 10 March 2020, Kajol had worked on a sex-trafficking story which reported links to politicians in Bangladesh. Social media posts on the story sparked police investigations against Kajol for breaching the Digital Security Act, after complaints filed by two senior politicians of the governing Awami League party.

The experts have already raised concerns with the Government over serious flaws in the authorities' investigations of the disappearance, and noted that the authorities in this period continued investigations against Kajol under the Digital Security Act for his journalistic activities.

When found on 3 May at the border with India, blindfolded and tied, Kajol was arrested and charged for illegally entering Bangladesh. Despite providing bail and given an order for his release, he was placed in pre-trial detention for fifteen days by Court order under the ongoing investigations Digital Security Act. At the expiration of this deadline however, he has not been released. "We express concern as to whether the legality of his detention has been subject to adequate judicial review, and that his detention continues seemingly without a legal basis. If confirmed, this would constitute a violation of human rights law. This is particularly concerning with heightened risk of COVID-19 infection that those detained are exposed to", the experts noted.
#freekajol

Bangladesh must end persecution of journalist, say UN experts  GENEVA (26 May 2020) – UN experts* expressed alarm about the ongoing persecution of journalist Shafiqul Islam Kajol in Bangladesh and his previous suspected enforced disappearance. They warned that his detention and the ongoing criminal cases against him compound fears that Bangladesh is using its Digital Security Act to stifle free speech. "The targeting of investigative journalists like Shafiqul Islam Kajol raises serious questions about Bangladesh's commitment to a free and independent media. Such persecution has devastating consequences for the journalists and their families – and also for society as a whole. Journalism is an essential function for society, democracy and accountability," the experts said. Before his disappearance on 10 March 2020, Kajol had worked on a sex-trafficking story which reported links to politicians in Bangladesh. Social media posts on the story sparked police investigations against Kajol for breaching the Digital Security Act, after complaints filed by two senior politicians of the governing Awami League party. The experts have already raised concerns with the Government over serious flaws in the authorities' investigations of the disappearance, and noted that the authorities in this period continued investigations against Kajol under the Digital Security Act for his journalistic activities. When found on 3 May at the border with India, blindfolded and tied, Kajol was arrested and charged for illegally entering Bangladesh. Despite providing bail and given an order for his release, he was placed in pre-trial detention for fifteen days by Court order under the ongoing investigations Digital Security Act. At the expiration of this deadline however, he has not been released. "We express concern as to whether the legality of his detention has been subject to adequate judicial review, and that his detention continues seemingly without a legal basis. If confirmed, this would constitute a violation of human rights law. This is particularly concerning with heightened risk of COVID-19 infection that those detained are exposed to", the experts noted. #freekajol

৫৩ দিন পর বাবাকে দেখেছিলাম মে মাসের তিন তারিখে, আর আজকে দ্বিতীয় বারের মতো দেখলাম। 
অল্প সময়ের সাক্ষাতে বাবা কাঁদলো এটা  বলে যে " আমার অনেক কষ্ট হয়ে যাচ্ছে. 53 days later I saw my father on the 3rd of May, and today I saw him for the second time.

During the short meeting, Baba cried - "I'm in a lot of pain"

#Freekajol

৫৩ দিন পর বাবাকে দেখেছিলাম মে মাসের তিন তারিখে, আর আজকে দ্বিতীয় বারের মতো দেখলাম। অল্প সময়ের সাক্ষাতে বাবা কাঁদলো এটা বলে যে " আমার অনেক কষ্ট হয়ে যাচ্ছে. 53 days later I saw my father on the 3rd of May, and today I saw him for the second time. During the short meeting, Baba cried - "I'm in a lot of pain" #Freekajol

We appeal to the Government of Bangladesh to consider my father's pre-existing health conditions and mental state and the mental trauma that we, his whole family, have been going through for the past 53 days. We appeal to the government to free my father and reunite him with us and drop all charges against him, out of humanity and out of kindness. We request everyone to come forward with their own efforts to help free my father, to Free Kajol. My mother, sister, and I are unable to eat, sleep or drink, as we are constantly worrying for my father's physical and mental health and exposure to coronavirus. Please help us.

@polokmonrom 
#freekajol

We appeal to the Government of Bangladesh to consider my father's pre-existing health conditions and mental state and the mental trauma that we, his whole family, have been going through for the past 53 days. We appeal to the government to free my father and reunite him with us and drop all charges against him, out of humanity and out of kindness. We request everyone to come forward with their own efforts to help free my father, to Free Kajol. My mother, sister, and I are unable to eat, sleep or drink, as we are constantly worrying for my father's physical and mental health and exposure to coronavirus. Please help us. @polokmonrom #freekajol

কল্লা কি আজি থাকিবে ধড়ে
এমন সাটায়ার বানাইবার পরে... Latif Hossain | Photography

কল্লা কি আজি থাকিবে ধড়ে এমন সাটায়ার বানাইবার পরে... Latif Hossain | Photography

FREEKAJOL

FREEKAJOL

“My father is not a criminal, he has only been charged and none of these charges are violent crimes,” he said. “We don’t know in the crowded prisons of Bangladesh how long he can stay away from coronavirus.”
••••••••••••••••
#freekajol #Bangladesh #journalist

“My father is not a criminal, he has only been charged and none of these charges are violent crimes,” he said. “We don’t know in the crowded prisons of Bangladesh how long he can stay away from coronavirus.” •••••••••••••••• #freekajol #Bangladesh #journalist

কাজলকে ছাড়ো

কাজলকে ছাড়ো

@whereiskajol instagram post

কাজলকে ছাড়ো

কাজলকে ছাড়ো

@whereiskajol instagram post

আপনাদের কাজল কে দেখেন। আমি সারা দিন এই ভিডিওটা সকাল বিকাল দেখি। আমার বাবার হাত পিছমোড়া করে বাঁধা। বাবা খুব কষ্ট হচ্ছে, তাইনা ?  কোনো ধরণের করোনা প্রটেকশান নেই। কি করতে পারি আপনারাই বলনে।

আপনাদের কাজল কে দেখেন। আমি সারা দিন এই ভিডিওটা সকাল বিকাল দেখি। আমার বাবার হাত পিছমোড়া করে বাঁধা। বাবা খুব কষ্ট হচ্ছে, তাইনা ? কোনো ধরণের করোনা প্রটেকশান নেই। কি করতে পারি আপনারাই বলনে।

#Repost @jibonahmed737 with @make_repost
・・・
#FreeKajol

৫৩ দিননিখোজথাকারপর গত শনিবার রাতে খোজ মেলে সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের। নিখোজের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমতাশীন দলের দুই নেতা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দু’টি মামলা করেন। সাংবাদিক কাজল উদ্ধার হওয়ার পর বিজিবিসহ প্রশাসন তাকে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে সাব্যস্ত করে এবং অনুপ্রবেশের মামলা ঠুকে দেয়। 
প্রথমত, সাংবাদিক কাজলের নিখোজ হওয়া এবং ঠিক সেই সময় তার বিরুদ্ধে মামলা হওয়াকে আমরা কাঁকতলিয় ঘটনা হিসেবে দেখছি না। তার গুম হওয়ার সাথে মামলার দায়েরের ঘটনার যোগসাজোশ আমরা খতিয়ে দেখার দাবি জানাই। 
দ্বিতীয়ত, সাংবাদিক কাজল বাংলাদেশের একজন নাগরিক। দেশের একজন সচেতন নাগরিককে নিজের দেশের মাটিতে অনুপ্রবেশকারীর তকমা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই এবং অনুপ্রবেশকারী আইনে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করার দাবি জানাই। 
ক্ষমতাশীন দলের নেতাকর্মীরা অনেকদিন ধরেই দেশের সচেতন নাগরিকদের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মাধ্যমে হয়রানি করে আসছে। সাংবাদিক কাজলের ঘটনাও তার ব্যতিক্রম নয়। অনুপ্রবেশকারী মামলায় তাকে জামিন দেওয়া হলেও আটকে রাখা হয়েছে পূর্বের মামলায়। একজন মানুষকে এভাবে ৫৩দিন গুম করে রাখার পর মামলা দিয়ে হয়রানি করাকে আমরা রাষ্ট্রযন্ত্রের হামলা-মামলা-হয়রানি নীতির বহিঃপ্রকাশ হিসেবেই দেখছি। আমরা সচেতন নাগরিকেরা অনতিবিলম্বে সাংবাদিক কাজলের বিরুদ্ধে করা হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহারসহ তার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানব বন্ধন।

#Repost @jibonahmed737 with @make_repost ・・・ #FreeKajol ৫৩ দিননিখোজথাকারপর গত শনিবার রাতে খোজ মেলে সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের। নিখোজের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ক্ষমতাশীন দলের দুই নেতা ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দু’টি মামলা করেন। সাংবাদিক কাজল উদ্ধার হওয়ার পর বিজিবিসহ প্রশাসন তাকে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে সাব্যস্ত করে এবং অনুপ্রবেশের মামলা ঠুকে দেয়। প্রথমত, সাংবাদিক কাজলের নিখোজ হওয়া এবং ঠিক সেই সময় তার বিরুদ্ধে মামলা হওয়াকে আমরা কাঁকতলিয় ঘটনা হিসেবে দেখছি না। তার গুম হওয়ার সাথে মামলার দায়েরের ঘটনার যোগসাজোশ আমরা খতিয়ে দেখার দাবি জানাই। দ্বিতীয়ত, সাংবাদিক কাজল বাংলাদেশের একজন নাগরিক। দেশের একজন সচেতন নাগরিককে নিজের দেশের মাটিতে অনুপ্রবেশকারীর তকমা লাগিয়ে দেওয়া হয়েছে। আমরা এই ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই এবং অনুপ্রবেশকারী আইনে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহার করার দাবি জানাই। ক্ষমতাশীন দলের নেতাকর্মীরা অনেকদিন ধরেই দেশের সচেতন নাগরিকদের ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মাধ্যমে হয়রানি করে আসছে। সাংবাদিক কাজলের ঘটনাও তার ব্যতিক্রম নয়। অনুপ্রবেশকারী মামলায় তাকে জামিন দেওয়া হলেও আটকে রাখা হয়েছে পূর্বের মামলায়। একজন মানুষকে এভাবে ৫৩দিন গুম করে রাখার পর মামলা দিয়ে হয়রানি করাকে আমরা রাষ্ট্রযন্ত্রের হামলা-মামলা-হয়রানি নীতির বহিঃপ্রকাশ হিসেবেই দেখছি। আমরা সচেতন নাগরিকেরা অনতিবিলম্বে সাংবাদিক কাজলের বিরুদ্ধে করা হয়রানিমূলক মামলা প্রত্যাহারসহ তার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে মানব বন্ধন।

#Repost @rahmanliemubd ••••••
A protester holds placard in front of National Press Club in Dhaka,Bangladesh on Tuesday,May. 05,2020 to demand release of a Bangladeshi journalist Shafiqul Islam Kajol,who was disappeared for 53 days, later found near indian border and arrested by BGB on charge of trespassing on May 02.Now he is in custody as the police re-arrest kajol under section 54, According to media report. 
#journalist #press #pressfreedom #freekajol #protest #dhaka #bangladesh #banner #news #editorial #photojournalism #life #syedmahamudurrahman 
@nppa @committeetoprotectjournalists @luciefoundation @magnumfoundation @gettyreportage @agence_zeppelin @agence_maxppp @epaphotos @pa @afpphoto @apnews  @efe_noticias @dpa_com @icp @drikimages @pathshala.institute

#Repost @rahmanliemubd •••••• A protester holds placard in front of National Press Club in Dhaka,Bangladesh on Tuesday,May. 05,2020 to demand release of a Bangladeshi journalist Shafiqul Islam Kajol,who was disappeared for 53 days, later found near indian border and arrested by BGB on charge of trespassing on May 02.Now he is in custody as the police re-arrest kajol under section 54, According to media report. #journalist #press #pressfreedom #freekajol #protest #dhaka #bangladesh #banner #news #editorial #photojournalism #life #syedmahamudurrahman @nppa @committeetoprotectjournalists @luciefoundation @magnumfoundation @gettyreportage @agence_zeppelin @agence_maxppp @epaphotos @pa @afpphoto @apnews @efe_noticias @dpa_com @icp @drikimages @pathshala.institute

Why the heroes of our country aren’t rescuing him? 
#Freekajol

Why the heroes of our country aren’t rescuing him? #Freekajol

আমাদের আগুনপুড়া শরীরে আপনাদের মলম খুবই দরকার। আমাদেরকে whereiskajol@gmail.com ঠিকানায় , পেইজ এর ইনবক্স এ বিভিন্ন পোস্টার , লেখা , গান , কবিতা , ভিডিও বার্তা পাঠাতে থাকুন, এই সময় আপনাদের থেকে এর বেশি আশা করছিনা। #freekajol

আমাদের আগুনপুড়া শরীরে আপনাদের মলম খুবই দরকার। আমাদেরকে whereiskajol@gmail.com ঠিকানায় , পেইজ এর ইনবক্স এ বিভিন্ন পোস্টার , লেখা , গান , কবিতা , ভিডিও বার্তা পাঠাতে থাকুন, এই সময় আপনাদের থেকে এর বেশি আশা করছিনা। #freekajol

My Letter.Please share!
••••••••• আমাদেরকে whereiskajol@gmail.com ঠিকানায় , পেইজ এর ইনবক্স এ বিভিন্ন পোস্টার , লেখা , গান , কবিতা , ভিডিও বার্তা পাঠাতে থাকুন, এই সময় আপনাদের থেকে এর বেশি আশা করছিনা। জেনে রাখবেন আপনাদের মনোরম পলক আপনাদের প্রচন্ড শ্রদ্ধা করে এবং ভালোবাসে। আপনাদের মলম, এন্টিবায়োটিক এবং টোটকার  অপেক্ষায় রইলাম। 
ইতি
আপনাদের 
মনোরম পলক

My Letter.Please share! ••••••••• আমাদেরকে whereiskajol@gmail.com ঠিকানায় , পেইজ এর ইনবক্স এ বিভিন্ন পোস্টার , লেখা , গান , কবিতা , ভিডিও বার্তা পাঠাতে থাকুন, এই সময় আপনাদের থেকে এর বেশি আশা করছিনা। জেনে রাখবেন আপনাদের মনোরম পলক আপনাদের প্রচন্ড শ্রদ্ধা করে এবং ভালোবাসে। আপনাদের মলম, এন্টিবায়োটিক এবং টোটকার  অপেক্ষায় রইলাম। ইতি আপনাদের  মনোরম পলক

আপনাদের মধ্যে অনেকে ঠিক বলছেন আমাদের অনেক ভাগ্য ভালো যে  আমাদের হাতে মারেনি!
#Freekajol

আপনাদের মধ্যে অনেকে ঠিক বলছেন আমাদের অনেক ভাগ্য ভালো যে আমাদের হাতে মারেনি! #Freekajol

**Update ** Update **Update 
৫৩ দিন পরে ৫৪ ধারার মামলা 
#Freekajol ••••••••••• আমাদেরকে whereiskajol@gmail.com ঠিকানায় , পেইজ এর ইনবক্স এ বিভিন্ন পোস্টার , লেখা , গান , কবিতা , ভিডিও বার্তা পাঠাতে থাকুন, এই সময় আপনাদের থেকে এর বেশি আশা করছিনা। জেনে রাখবেন আপনাদের মনোরম পলক আপনাদের প্রচন্ড শ্রদ্ধা করে এবং ভালোবাসে।আপনাদের মলম, এন্টিবায়োটিক এবং টোটকার  অপেক্ষায় রইলাম। 
ইতি
আপনাদের 
মনোরম পলক

**Update ** Update **Update ৫৩ দিন পরে ৫৪ ধারার মামলা #Freekajol ••••••••••• আমাদেরকে whereiskajol@gmail.com ঠিকানায় , পেইজ এর ইনবক্স এ বিভিন্ন পোস্টার , লেখা , গান , কবিতা , ভিডিও বার্তা পাঠাতে থাকুন, এই সময় আপনাদের থেকে এর বেশি আশা করছিনা। জেনে রাখবেন আপনাদের মনোরম পলক আপনাদের প্রচন্ড শ্রদ্ধা করে এবং ভালোবাসে।আপনাদের মলম, এন্টিবায়োটিক এবং টোটকার অপেক্ষায় রইলাম। ইতি আপনাদের মনোরম পলক

"কেয়ারটেকার সরকার ক্ষমতায় আসলে বর্তমান
প্রধানমন্ত্রী যখন জেলে ছিলেন তখন কাজল  জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রধানন্ত্রীর  খোঁজ খবর নিয়েছেন।"
#Freekajol

"কেয়ারটেকার সরকার ক্ষমতায় আসলে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী যখন জেলে ছিলেন তখন কাজল জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রধানন্ত্রীর খোঁজ খবর নিয়েছেন।" #Freekajol

@whereiskajol instagram post

সাহসী আর একরোখা ছেলে পলকের হার না মানা চেষ্টার ফলস্বরুপ নিঁখোজ সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজল এর খোঁজ পাওয়া গেছে ৫৪ দিন পরে আজ ভোরে বেনাপোল সীমান্তবর্তী এলাকায়। আল্লাহর কাছে অশেষ অশেষ শুকরিয়া। উনার বিরুদ্ধে সীমান্ত দিয়ে নিজ দেশেই অনুপ্রবেশের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। নিজ দেশে কেউ কিভাবে অনুপ্রবেশের মামলায় অভিযুক্ত হয় আমার জানা নাই। আইনের ব্যাপার, আইনের হাত অনেক লম্বা। ঐ লম্বা হাত পর্যন্ত কবে পৌঁছানো যাবে সেটা পরের ব্যাপার কিন্তু যতদূর জানি এই মামলায় উনার জামিন হয়ে যাওয়ার কথা। জামিন হয় নাই। পলকের সাথে কথা বলে জানলাম উনাকে অন্য আসামীদের সাথে গাড়িতে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এই করোনাকালীন সময়ে এই জামিনযোগ্য মামলায় বা অন্য যেকোন নতুন মামলায় জামিন না পেয়ে সাংবাদিক কাজলকে যদি তার পরিবারের কাছে যাওয়ার সুযোগ না দেয়া হয় সেটা হবে চূড়ান্ত অমানবিক। সরকার এই সময়ে সবাইকে মানবিক হওয়ার উপদেশ দিয়ে যাচ্ছে কিন্তু কাজলের এবং কাজলের পরিবারের প্রতি যদি মানবিকতা দেখাতে আমরা ব্যর্থ হই তাহলে এই লজ্জা বাংলাদেশের।

সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের জামিনের মাধ্যমে মুক্তি চাই।
#FreeKajol

সাহসী আর একরোখা ছেলে পলকের হার না মানা চেষ্টার ফলস্বরুপ নিঁখোজ সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজল এর খোঁজ পাওয়া গেছে ৫৪ দিন পরে আজ ভোরে বেনাপোল সীমান্তবর্তী এলাকায়। আল্লাহর কাছে অশেষ অশেষ শুকরিয়া। উনার বিরুদ্ধে সীমান্ত দিয়ে নিজ দেশেই অনুপ্রবেশের অভিযোগে মামলা করা হয়েছে। নিজ দেশে কেউ কিভাবে অনুপ্রবেশের মামলায় অভিযুক্ত হয় আমার জানা নাই। আইনের ব্যাপার, আইনের হাত অনেক লম্বা। ঐ লম্বা হাত পর্যন্ত কবে পৌঁছানো যাবে সেটা পরের ব্যাপার কিন্তু যতদূর জানি এই মামলায় উনার জামিন হয়ে যাওয়ার কথা। জামিন হয় নাই। পলকের সাথে কথা বলে জানলাম উনাকে অন্য আসামীদের সাথে গাড়িতে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এই করোনাকালীন সময়ে এই জামিনযোগ্য মামলায় বা অন্য যেকোন নতুন মামলায় জামিন না পেয়ে সাংবাদিক কাজলকে যদি তার পরিবারের কাছে যাওয়ার সুযোগ না দেয়া হয় সেটা হবে চূড়ান্ত অমানবিক। সরকার এই সময়ে সবাইকে মানবিক হওয়ার উপদেশ দিয়ে যাচ্ছে কিন্তু কাজলের এবং কাজলের পরিবারের প্রতি যদি মানবিকতা দেখাতে আমরা ব্যর্থ হই তাহলে এই লজ্জা বাংলাদেশের। সাংবাদিক শফিকুল ইসলাম কাজলের জামিনের মাধ্যমে মুক্তি চাই। #FreeKajol

03-05-2020 3PM

03-05-2020 3PM

Facebook live update
03-05-2020 8PM

Facebook live update 03-05-2020 8PM

World Press Freedom Day LIVE : Press Freedom in Bangladesh and missing journo Kajol

World Press Freedom Day LIVE : Press Freedom in Bangladesh and missing journo Kajol

Is marking world Press Freedom Day in Bangladesh an irony? Find out at May 3, Sunday, 10 PM 
#worldpressfreedomday #whereiskajol #facebooklive

Is marking world Press Freedom Day in Bangladesh an irony? Find out at May 3, Sunday, 10 PM #worldpressfreedomday #whereiskajol #facebooklive

SUN,3 MAY AT 10:00-11:30PM
Link: https://www.facebook.com/whereiskajol

World Press Freedom Day উপলক্ষ্যে আপনাদের সকলকে মে ৩ রাত ১০টার লাইভ "সাংবাদিক কাজল এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা "  শীর্ষক আলোচনায় অংশগ্রহণের অনুরোধ করছি। উক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন :
 গোলাম মর্তুজা //ডেইলি ষ্টার ;
 উদিসা ইমন// বাংলা ট্রিবিউন ;
 হারুন উর  রশিদ//বাংলা ট্রিবিউন এবং ডয়েস ভেলে ;
সুস্মিতা এস পৃথা //ডেইলি ষ্টার; 
ফাহমিদুল হক // শিক্ষক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ; 
জাইমা ইসলাম //ডেইলি ষ্টার; 
অরিজিৎ সেন// ভারত//সিনিয়র এডিটর  সিএনএন-আইবিএন;
 ফিরোজ আহমেদ (মডারেটর )/ লেখক ও রাজনীতিবিদ 
ধন্যবাদ 
মনোরম পলক 
Update: Journalist Kajol, accused under Digital Security Act, is missing.

Kajol, the editor of daily newspaper Pokkhokal, is missing since Tuesday, March 10th. Journalist Shafiqul Islam Kajol, one of the accused in the case filed against Manabzamin Editor Matiur Rahman Chowdhury and 31 others under the Digital Security Act, is missing since 10th March.
Following this, the police only registered a complaint from Kajol’s family on March 11 but refused to take a case and also denied having him under their custody.
However, on 18 March, after a High Court order, Polok, the missing journalist’s son, was finally able to file a case regarding the incident with Chawkbazar police station against several unnamed individuals.
On 1st April, Amnesty International collected a copy of another case filed, under the draconian digital security act, against Shafiqul Islam Kajol. This was a backdated case. The date mentioned in the new case was 10th March 2020, 10.10 pm. This is about 3 hours after Shafiqul Islam Kajol was last seen.

SUN,3 MAY AT 10:00-11:30PM Link: https://www.facebook.com/whereiskajol World Press Freedom Day উপলক্ষ্যে আপনাদের সকলকে মে ৩ রাত ১০টার লাইভ "সাংবাদিক কাজল এবং গণমাধ্যমের স্বাধীনতা " শীর্ষক আলোচনায় অংশগ্রহণের অনুরোধ করছি। উক্ত আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন : গোলাম মর্তুজা //ডেইলি ষ্টার ; উদিসা ইমন// বাংলা ট্রিবিউন ; হারুন উর রশিদ//বাংলা ট্রিবিউন এবং ডয়েস ভেলে ; সুস্মিতা এস পৃথা //ডেইলি ষ্টার; ফাহমিদুল হক // শিক্ষক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ; জাইমা ইসলাম //ডেইলি ষ্টার; অরিজিৎ সেন// ভারত//সিনিয়র এডিটর সিএনএন-আইবিএন; ফিরোজ আহমেদ (মডারেটর )/ লেখক ও রাজনীতিবিদ ধন্যবাদ মনোরম পলক Update: Journalist Kajol, accused under Digital Security Act, is missing. Kajol, the editor of daily newspaper Pokkhokal, is missing since Tuesday, March 10th. Journalist Shafiqul Islam Kajol, one of the accused in the case filed against Manabzamin Editor Matiur Rahman Chowdhury and 31 others under the Digital Security Act, is missing since 10th March. Following this, the police only registered a complaint from Kajol’s family on March 11 but refused to take a case and also denied having him under their custody. However, on 18 March, after a High Court order, Polok, the missing journalist’s son, was finally able to file a case regarding the incident with Chawkbazar police station against several unnamed individuals. On 1st April, Amnesty International collected a copy of another case filed, under the draconian digital security act, against Shafiqul Islam Kajol. This was a backdated case. The date mentioned in the new case was 10th March 2020, 10.10 pm. This is about 3 hours after Shafiqul Islam Kajol was last seen.

আপনারা কখনই বুঝতে পারবেন না যখন কারো বাবা ঘরে না ফিরে ৫০ দিন ধরে  তার আসলে কেমন লাগে। আপনারা মনে করেন আপনারা ভাবতে বা বুঝতে  পারেন এবং  অনুমান করতে পারেন কিন্তু আসলে আপনাদের বুঝবার অভিজ্ঞতা হয়নি একটুও। কয়েক মন ওজনের পাথর কখনো কাঁধে নিয়ে ৫০টা দিন কাটিয়েছেন? আপনাদের মতো আমিও পারতাম না । আজ ৫০ দিন আমার বাবা কাজল ফিরেনি ঘরে। জানতেও পারি নাই কোথায় তাকে ধরে রেখেছে , কি করে তাকে রেখেছে, কতটুকু টর্চার করেছে, সিসিটিভিতে স্পষ্ট সন্দেহজনক অমানুষদের দেখা যাওয়ার পরও আজ ৫০ দিন হয়ে গেলো এ বিষয়ে কোনো  অগ্রগতি নেই।

#whereiskajol #journalist #art #portrait #disappearance #enforceddisappearance #bangladesh #covid_19 #resistanceinthetimeofcovid19

আপনারা কখনই বুঝতে পারবেন না যখন কারো বাবা ঘরে না ফিরে ৫০ দিন ধরে তার আসলে কেমন লাগে। আপনারা মনে করেন আপনারা ভাবতে বা বুঝতে পারেন এবং অনুমান করতে পারেন কিন্তু আসলে আপনাদের বুঝবার অভিজ্ঞতা হয়নি একটুও। কয়েক মন ওজনের পাথর কখনো কাঁধে নিয়ে ৫০টা দিন কাটিয়েছেন? আপনাদের মতো আমিও পারতাম না । আজ ৫০ দিন আমার বাবা কাজল ফিরেনি ঘরে। জানতেও পারি নাই কোথায় তাকে ধরে রেখেছে , কি করে তাকে রেখেছে, কতটুকু টর্চার করেছে, সিসিটিভিতে স্পষ্ট সন্দেহজনক অমানুষদের দেখা যাওয়ার পরও আজ ৫০ দিন হয়ে গেলো এ বিষয়ে কোনো অগ্রগতি নেই। #whereiskajol #journalist #art #portrait #disappearance #enforceddisappearance #bangladesh #covid_19 #resistanceinthetimeofcovid19